Home » Featured » সিনিয়র লিডার টিম ফ্যারন ব্রিটেনে ৬০,০০০ মাইগ্র্যান্ট কোটা সিস্টেমের দাবী জানিয়েছেন

সিনিয়র লিডার টিম ফ্যারন ব্রিটেনে ৬০,০০০ মাইগ্র্যান্ট কোটা সিস্টেমের দাবী জানিয়েছেন

সৈয়দ শাহ সেলিম আহমেদ- লন্ডন থেকে

 

একদিকে ইমিগ্র্যান্ট সিস্টেম কঠিণ করার জন্য সরকারের গৃহীত নানা পদক্ষেপ, আর বিপরীতে এসাইলাম ও রিফিউজিদের ফার্স্ট ট্র্যাক সিস্টেমের এপিলের ব্যবস্থা ১৩ জুন ২০১৫ হাইকোর্টের যুগান্তকারী রায়ে বাতিল ও অমানবিক আখ্যা দেয়া- এই দুই অবস্থার মাঝখানে মোটা দাগের হরফে যে কথা হলো- ব্রিটিশ জনগণ মাইগ্র্যান্টদের বিরুদ্ধে তাদের রায় দিয়েছেন, অর্থাৎ টোরি দলের যারাই মাইগ্র্যান্টদের বিরুদ্ধে ও কন্ট্রোল নিয়ে কথা বলেছেন, তিনিই জয়ী হয়েছেন। বিপরীতে মাইগ্র্যান্ট ইস্যুতে লেবার দলের সীমাহীন অস্বচ্ছ ও অনেক খোলামেলা নীতি ব্রিটিশ জনগণ এই মুহুর্তে মেনে নেননি- যে কারণে অনেক গুলো কারণের মধ্যে এটাও একটা কারণ তাদের বিপর্যয়কর ফলাফলের জন্য। এমনি এক সময়ে  ব্রিটেনের সিনিয়র রাজনীতিবিদ টিম ফ্যারন ইউরোপীয় ইউনিয়নের বাইরে থেকে ব্রিটেনে ৬০,০০০ মাইগ্র্যান্ট এর কোটার কথা জোরালোভাবে বলেছেন। তিনি বলেছেন ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে একযোগে এসাইলাম ও রিফিউজি সংকট মোকাবেলায় ব্রিটেনের উচিত মাইগ্র্যান্টদের জন্য কোটা সিস্টেম তথা বছরে ৬০,০০০ মাইগ্র্যান্ট সিস্টেম চালু করা।

 

গত ৫ জুলাই ২০১৫ টিম ফ্যারন  দৈনিক অবজারভেররের সাথে এক দীর্ঘ সাক্ষাতকারে এই নয়া কোটা সিস্টেমের কথা তুলে ধরেন।

 

ফ্যারন আরো বলেন, এই ব্যবস্থা খুবই ফেয়ার এবং উত্তম এক ব্যবস্থা, যা আমাদের এই সংকট মোকাবেলায় আলোকবর্তিকা হিসেবে পথ দেখাবে। ফ্যারন এর এই প্রস্তাবিত কোটা সিস্টেম ব্রিটেনের মূলধারার অনেক দৈনিকই তাদের প্রতিবেদনের এর মধ্যে এটাকে কন্ট্রোভার্সিয়াল হিসেবে আখ্যা দিলেও ইউরোপীয় ইউনিয়ন প্রেসিডেন্ট ঝংকার সহ জার্মানি, ইটালির সমর্থন রয়েছে।

 

ইতোমধ্যেই তিনি ডেভিড ক্যামেরনের কাছে এক চিঠিতে লিখেছেন, আমাদের অবশ্যই মাইগ্র্যান্ট সমস্যা মোকাবেলা, গ্রহণ এবং ১৯৭২ সালে সাবেক ইদিয়ামিন  সরকার যাদেরকে বহিস্কার করেছিলো সেই উগান্ডানিয়ান এবং বহু এশিয়ানকে আমরা স্থান দিয়ে রেকর্ড সৃস্টি করেছি।

 

টিম ফ্যারন বর্তমানে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রধানের পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। অবজারকে ফ্যারন বলেছেন, মাইগ্র্যান্ট সিস্টেম নিয়ে তার পার্টির স্বচ্ছ এবং বাস্তব নীতি রয়েছে, কারণ তার ভাষায় তারা ডিসেন্ট পিপল- আমাদের এটাকে সমর্থন করা উচিৎ, মাইগ্র্যাশন নিয়ে মিক্সড ম্যাসেজ দেয়া ঠিক নয়, কিংবা জনগণকে দূরে ঠেলে দেয়াটা সঠিক কাজ নয়।

 

এদিকে গত শনিবার ১৫০ জন ইউরো ট্যানেল হয়ে লরিতে করে ব্রিটেনে আসার চেস্টা করলে ক্যালাইস টার্মিনালে তাদের অভিযানের সময় ধরা পড়েন। একই সাথে পরেরদিন একই ধরনের ঘটনায় কন্টেইনারের ভিতরে কয়েকজনের নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে।

 

ইউরোপের পরিসংখ্যান ইউরোস্ট্যাট এর মতে, ২০১৪ সালে ইউরোপে এসাইলাম এর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে ৪৪% বা ৬২৬,০০০ এ দাড়িয়েছে ।

 

এর প্রেক্ষিতে গত মাসে কমিশনের চেয়ারম্যান ঝংকার ইউরোপে মাইগ্র্যান্ট কোটা সিস্টেম বাধ্যতামূলক করার আহবান জানিয়েছিলেন, যার ফলে ব্রিটেন এ বছর ৬০,০০০ মাইগ্র্যান্ট কোটায় স্বাগত জানাবে বলে তার মত। ঝংকারের এই বক্তব্যের পর পরই লিবারেল নেতা ৫ই জুলাই এই ধরনের কোটা সিস্টেমের কথা উল্লেখ করে নিজেদের বক্তব্য তুলে ধরেছেন।

 

যুক্তরাজ্যের সরকার ঝঙ্কার এর এই কোটা সিস্টেম প্রত্যাখান করে বক্তব্য দিয়েছিলো। ক্যামেরন তখন বলেছিলেন, কেন এতো লোক জীবনের ঝুকি নিয়ে ভুমধ্যসাগর উত্তাল সমুদ্র পাড়ি দিয়ে নিজ দেশ ত্যাগ করছেন। তিনি বলেছিলেন, এই সমস্যাকে ট্যাকল করতে হবে।

 

১০ দিন আগে যখন কমিশনের চেয়ার এমন বক্তব্য দিয়েছিলেন তখন ইউনিয়নের ভিতরের খোদ হ্যাঙ্গেরি, বুলগেরিয়া, লিথুনিয়া- এই ব্যবস্থা প্রত্যাখান করেছিলো।  জার্মানী এবং ইটালি এই ব্যবস্থাকে সমর্থন করে ভলান্টারি ব্যবস্থার পরিবর্তে বাধ্যতামূলক স্কিমে সমর্থন করেছিলো।

 

লিবারেল ডেমোক্রেট পার্টির সদস্যদের মধ্যে নেতা নির্বাচনের জন্য ব্যালট পেপার বিলি করা হয়েছে গত ২৪শে জুন এবং ফলাফল জানা যাবে ১৬ জুলাই।

 

Salim932@googlemail.com

07th July 2015, LOndon

Add a Comment

Your email address will not be published.