Home » Featured » ২০১৯ সাল পর্যন্ত ব্রেক্সিট বিলম্ব হতে পারে- সানডে টাইমস

২০১৯ সাল পর্যন্ত ব্রেক্সিট বিলম্ব হতে পারে- সানডে টাইমস

সৈয়দ শাহ সেলিম আহমেদ- 

 

সরকারী উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তা এবং মন্ত্রী সানডে টাইমসের প্রতিবেদকের কাছে স্বীকার করেছেন আগামী ২০১৯ সালের শেষের আগে ব্রিটেন ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাচ্ছেনা । তার মানেই হলো ব্রেক্সিট হতে নির্ধারিত সময়ের চেয়ে আরো এক বছর অধিক সময় লাগবে।

theresa

যদিও থেরেসা মে বলেছেন, আগামী বছর  জানুয়ারিতে আর্টিকল ৫০- এ তিনি ট্রিগার করবেন- যাতে পুরো দুই বছর সময় লেগে যায় নেগোসিয়েশন করার জন্যে। থেরেসা মে`র  উপর প্রেসার সত্যেও তার ব্রেক্সিট এবং ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড ডিপার্টম্যান্টের কারনেই এই বিলম্ব হতে পারে বলে সানডে টাইমস অবগত হয়েছে।

 

সামনে রয়েছে জার্মান ও ফ্রান্সের নির্বাচন। নির্বাচন হেতু উভয় দেশের সাথে টার্মস এন্ড কন্ডিশন নিয়ে নেগোসিয়েশন পিছিয়ে যেতে পারে- যে কারণে ব্রেক্সিট পিছিয়ে যেতে পারে।

 

দুইজন সিনিয়র মিনিস্টার সম্প্রতি সংবাদ পত্রের প্রতিনিধিদের সাথে আলোচনার সময়েও এই পিছিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে আলোচনা করেছেন। তাতে তারা বলেছেন খুব সম্ভবতঃ আগামী অটামের (২০১৭) আগে সম্ভব হবেনা। তারা স্বীকার করেছেন, ব্রেক্সিটের জন্য সঠিক স্থান ও মানুষ জানা নেই যাকে প্রশ্ন বা জিজ্ঞাসা করা যাবে। এমনকি হায়ার করার জন্য  ইনফ্রাস্টাকচারও এখনো তাদের অবগত নয়।

 

ডাউনিং ষ্ট্রীটের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী ক্লিয়ারলি ম্যাসেজ দিয়েছেন তিনি এবং তার টিমের অগ্রাধিকার ব্রেক্সিট প্রসেস ডেলিভার করা। সেজন্যে আর্টিকল ৫০ ট্রিগার করার জন্যে  তিনি নতুন ব্রেক্সিট  ডিপার্টম্যান্ট তৈরি করে ডেভিড ডেভিস কে দায়িত্ব দিয়েছেন।

brexit

অবশ্য ওয়েলিংবারার কনজারভেটিভ এমপি পিটার বন এমন রিপোর্টের প্রেক্ষিতে বলেছেন, তার মনে হয়না, থেরেসা মে ব্রেক্সিট ইস্যুতে দেরী করবেন। কেননা তিনিইতো  ব্রেক্সিট প্রসেস ডেলিভারির দায়িত্ব নিয়েই এসেছেন এবং সেজন্যে দায়িত্ব বন্টন সহ আর্টিকল ৫০ ট্রিগারে সময়ও নির্ধারন করে দিয়েছেন। আমাদের উচিৎ হবেনা, ব্রিটিশ জনগনের মতামত ব্রেক্সিটের পক্ষে এসেছে, তাকে বিলম্ব করা।

 

অবশ্য তিনি স্বীকার করেছেন, এমন অসংখ্য মানুষ, অসংখ্য আমলা, আমলাতন্ত্র এবং এস্টাবলিশম্যান্ট আছেন,  যারা ব্রেক্সিট চান না, তারা কিছুতেই চাইবেননা ব্রেক্সিট হয়ে যাক।

sadiq-khan-

লন্ডনের বর্তমান মেয়র সাদিক খান অবশ্য চাচ্ছেন ব্রেক্সিট দেরি করতে। প্রসঙ্গ উত্থাপন করতে বিশ্বস্থ সোর্স  সাদিক খানের রেফারেন্স টেনে বলেছেন, সামনে জার্মান ইলেকশন, মেয়রও বলেছেন, আপনি জানেননা কার সাথে নেগোসিয়েশন করবেন- এমন অবস্থায় বিলম্ব করাটাই শ্রেয়।

sundaytimes Masthead

সানডে টাইমস অবলম্বনে-

১৪ আগস্ট ২০১৬

লন্ডন ।