Home » লন্ডন নিউজ » ১১,০০০ সিগনেচার, তারপরেও হোম অফিস জানালো ব্রিটিশ ভিসা অফিস ভারতেই থাকবে

১১,০০০ সিগনেচার, তারপরেও হোম অফিস জানালো ব্রিটিশ ভিসা অফিস ভারতেই থাকবে

সৈয়দ শাহ সেলিম আহমেদ- লন্ডন থেকে

দিল্লীতে ব্রিটিশ ভিসা অফিস ঢাকা হতে স্থানান্তরের পর ব্রিটেন সহ বিশ্বের সকল স্থানের প্রবাসী বাংলাদেশীদের পক্ষ থেকে প্রতিবাদ ও দেন দরবার হতে থাকে। নানা ফোরাম, সমিতি, সংগঠণের পক্ষ হতে দাবী উত্থাপিত হতে থাকে ভিসা অফিস আবারো ঢাকায় স্থানান্তরের জন্য। ব্রিটেন প্রবাসী বাংলাদেশী বিশেষ করে সিলেট প্রবাসী নানা সংগঠন এ ব্যাপারে স্থানীয় এমপি সহ বিভিন্ন স্থরে লিয়াজো ও লন্ডনে সভা সমাবেশ করে অফিস ফিরিয়ে আনার দাবী জানাতে থাকেন। সেই সাথে ১০,০০০ হাজার সিগনেচারের টার্গেট নিয়ে হোম অফিসে আবেদনের জন্য পিটিশন অনলাইনে চালু করেন। টার্গেট ফুল হয়ে সিগনেচার ১১,০০০ গিয়ে উঠে। হোম অফিস এহেন অবস্থায় পিটিশনের জবাব দিতে বাধ্য হেতু গত ৬ই ফেব্রুয়ারি তাদের জবাব বা সিদ্ধান্ত জানিয়ে সিগনেচার যারা করেছিলেন তাদের ইমেইলে পাঠিয়ে দেয়। উল্লেখ্য প্রথা অনুযায়ী ১০,০০০ সিগনেচার হলে হোম অফিস সাধারণতঃ রিপ্লাই ও রিভিউ করে থাকে। আর ১০০,০০০ সিগনেচারের পিটিশন হলে পার্লামেন্টে সেটা নিয়ে বিতর্ক হয়ে থাকে। এটাই নিয়ম, এটাই প্রথা।

৬ই ফেব্রুয়ারি হোম অফিস পিটিশনের জবাবে জানিয়েছে, ভিসা অফিস স্থানান্তরের সময় যে ব্যাখ্যা তারা দিয়েছিলো অবিকল একই ব্যাখ্যা শুধু তারিখ চেঞ্জ করে তারা জানিয়েছে, দিল্লী থেকে ভিসা অফিস স্থানান্তরিত করার চিন্তা নেই। এই সিদ্ধান্ত পরিবর্তন হবেনা। কেননা, খরচ ও অন্যান্য এবং ট্যাক্স পেয়ারদের স্বচ্ছতার স্বার্থেই এমন সিদ্ধান্ত। আর রিজিওনাল ছোট এমন অফিস বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকেও ভিসা অফিস স্থান্তরিত করে বড় রিজিওনাল অফিসে নেয়া হয়েছে- তাদের রিজিওনাল হাব এর নিয়মে।

হোম অফিস আরো জানিয়েছে, প্রচলিত নিয়মে যেভাবে বাংলাদেশে দুতিনটি ভিসা সেন্টারের মাধ্যমে আবেদন পত্র জমা নেয়া হয়ে থাকে সেই সেবা বাংলাদেশে চালু থাকবে।

হোম অফিস তাদের এই স্থানান্তরের অভিজ্ঞতার আলোকে জানিয়েছে, নন-সেটেলম্যান্ট ভিসা আবেদনের ক্ষেত্রে ১১ কার্যদিবস আর সেটেলম্যান্ট ভিসা আবেদনের ক্ষেত্রে ৩৭ কর্ম দিবস লাগছে- তাদের এই প্ল্যান ওয়ার্কিং করছে।ভিসা প্রসেসিং এ তাদের সময় আগের চেয়ে কম লাগছে। সেকারণেও তারা তাদের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করবেনা।

হোম অফিস আরো জানিয়েছে, ঢাকা হাই কমিশনে তাদের স্টাফ কাজে থাকবে এবং সকল পাসপোর্ট বাংলাদেশেই থাকে বলে জানিয়েছে।

পিটিশনে হোম অফিসের জবাব এর লিংক-

https://petition.parliament.uk/petitions/105738?reveal_response=yes

salim932@googlemail.com

29 Feb 2016,London

Add a Comment

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!