Home » Featured » র‍্যাংকিংয়ে শীর্ষে ম্যাসাচুসেটস ইন্সটিটিউট অব টেকনোলোজি, হার্ভার্ড দ্বিতীয় স্থানে

র‍্যাংকিংয়ে শীর্ষে ম্যাসাচুসেটস ইন্সটিটিউট অব টেকনোলোজি, হার্ভার্ড দ্বিতীয় স্থানে

280

র‍্যাংকিংয়ে শীর্ষে ম্যাসাচুসেটস  ইন্সটিটিউট অব টেকনোলোজি, হার্ভার্ড দ্বিতীয় স্থানে

সৈয়দ শাহ সেলিম আহমেদ: আন্তর্জাতিক র‍্যাংকিংয়ের  শীর্ষ স্থান থেকে ব্রিটিশ বিশ্ববিদ্যালয় সমূহ ছিটকে পরেছে। অক্সফোর্ড, ক্যামব্রিজের মতো বিশ্বখ্যাত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো র‍্যাংকিং এ পেছনে  পরে গেছে। সেখানে এবার বিশ্বের শীর্ষ স্থান দখল করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি, আর দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি। আবার ব্রিটেনের ক্যামব্রিজ ইউনিভার্সিটি  বিশ্বের খ্যাত নামা পাচ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে  আমেরিকান ইউনিভার্সিটির সাথে যৌথভাবে তৃতীয় স্থানে রয়েছে।

 

বিশ্বের সেরা দশটি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে  ব্রিটেনের  চারটি বিশ্ববিদ্যালয় থাকলেও ২০১৪ সালের র‍্যাংকিংযে  ইমপেরিয়াল কলেজ ও ক্যামব্রিজ যৌথভাবে  দ্বিতীয় স্থান অধিকারী লন্ডন ইমপেরিয়াল কলেজ এবার অস্টম স্থানে নেমে এসেছে। কারণ  হিসেবে দেখানো হয়েছে র‍্যাংকিয়ে এবার বিশ্ববিদ্যালয় সমূহে ম্যাথডোলজি পরিবর্তন করা হয়েছে।

 

অক্সফোর্ড এবং ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডন গত বছর  যেখানে যৌথভাবে পঞ্চম স্থানে ছিলো, এবার নেমে সেক্ষেত্রে যথাক্রমে ষষ্ট এবং সপ্তম স্থানে এসেছে। আর কিংস কলেজ লন্ডন গত বছর যেখানে ছিলো ১৬তম, এবার তিন ধাপ নেমে হয়েছে ১৯তম স্থানে।

 

গত বছর র‍্যাংকিয়ে সাতে থাকা স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি  ইন ক্যালিফোর্নিয়া এবার ক্যামব্রিজের সাথে যৌথভাবে তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে। ক্যালিফোর্নিয়া ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি  পঞ্চম, জুরিখের ফেডারেল সুইস ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি নবম, শিকাগো ইউনিভার্সিতি দশম স্থান অধিকার করে আছে।

 

কিউএস ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি র‍্যাংকিয়ে লন্ডন স্কুল অব ইকোনোমিক্স এবং পলিটিক্যাল সাইন্স এই মেথডোলজির কল্যাণে অবশ্য ৭১তম স্থান থেকে উপরের দিকে উঠে ৩৫তম স্থান অধিকার করেছে।

 

আগে যেখানে কিউএস র‍্যাংকিং শুধু মাত্র রিসার্চ এবং মেডিক্যাল সাকসেস গ্রাউন্ডে র‍্যাংকিং উপরের দিকে আসতো, বা করা হতো, বর্তমানে সেখানে এগুলো  ছাড়াও মানবিক  এবং শিল্প কলা শাখায় আউটস্ট্যান্ডিং কার্যক্রমের সব মিলিয়েই করা হয়। সেক্ষেত্রে ওয়ারউইক  ৫০ থেকে ৪৮ আর ডারহাম ৯২ থেকে ৬১তে স্থান পেয়েছে।

 

প্রথমবারের মতো সিঙ্গাপুরের দুটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রথম ১৫ মধ্যে রয়েছে- ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব সিঙ্গাপুর  ১২তম, নানইয়াং  টেকনোলজিক্যাল  ইউনিভার্সিটি ( এশিয়ান  ইন্সটিটিউশনের সাথে) ১৩তম স্থান দখল করেছে।

 

বিশ্বের শীর্ষ ২০০ বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে আমেরিকার ৪৯টি, ইউকের ৩০টি, নেদারল্যান্ডস এর ১২টি, জার্মানির ১১, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, জাপানের ৮টি আর চায়নার ৭টি করে বিশ্ববিদ্যালয় স্থান পেয়েছে।

 

লন্ডন একমাত্র সিটি যেখানে বিশ্বের নামকরা ৫০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে মাত্র ৪টি বিশ্ববিদ্যালয় শীর্ষ স্থানের মধ্যে রয়েছে, বোস্টন, নিউইয়র্কের ৩টি, প্যারিস, সিডনি, হংকং, বেইজিং এর ২টি করে স্থান পেয়েছে।

 

এ ব্যাপারে  লন্ডনের মেয়র বরিস জনসন বলেন, সন্দেহনাই যে লন্ডন সিটি হলো বিশ্বের সেরা বিশ্ববিদ্যালয় সমূহের মধ্যে শীর্ষ চারটি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাধ্যমে জ্ঞান বিজ্ঞান চর্চা ও আহরনের স্থান, এবং বিশ্বসেরা  শিক্ষাদানের মাধ্যমে মেধার সর্বোচ্চ ব্যবহার, বিকাশের মাধ্যমে আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থা দিন দিন আরো শক্তিশালী অবস্থানে আসছে।

 

এদিকে কিউএস গ্লোবাল এডভাইজরি বোর্ডের সদস্য জন ও`লিয়ারি বলেন, এবছর নামকরা বিশ্ববিদ্যালয় পেছনে রয়ে গেছে, ইউকে দ্বিতীয় স্থানে আর  আমেরিকান প্রতিষ্ঠান এবার শীর্ষ স্থান দখল করেছে।তারপরে ইউকের চারটি প্রতিষ্ঠান শীর্ষ ১০টির মধ্যেই আছে।

 

Salim932@googlemail.com

15th Sept.2015, London

৩ Comments

Add a Comment

Your email address will not be published.